25th July, 2021
HOTLINE: 01618-881216
বাজিতপুরে এসএসসি পরীক্ষার্থী খুন

বাজিতপুরে এসএসসি পরীক্ষার্থী খুন

বাজিতপুরে এসএসসি পরীক্ষার্থী খুন

বাজিতপুরে এসএসসি পরীক্ষার্থী খুন

প্রেম ও বিয়ের প্রস্তাবে রাজি না হওয়ায় এসএসসি পরীক্ষার্থী সুমাইয়া আক্তারের (১৫) প্রাণ কেড়ে নিল দুর্বৃত্তরা। কিশোরগঞ্জের বাজিতপুর উপজেলার দীঘিরপাড় ইউনিয়নের সাহাপুর চেঙ্গাহাটি গ্রামে দুর্বৃত্তদের হামলায় আহত সুমাইয়া বুধবার রাত পৌনে ১২টার দিকে রাজধানীর উত্তরায় লেক ভিউ হাসপাতালে মৃত্যুর কোলে ঢলে পড়েন। হামলায় আহত তার মা ফেরদৌসী আক্তারকে ভাগলপুরে জহুরুল ইসলাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে এবং তার বাবা জহিরুল ইসলাম ও বোন সুরাইয়া আক্তারকে গুরুতর আহত অবস্থায় কিশোরগঞ্জ শহিদ সৈয়দ নজরুল ইসলাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

এ ঘটনায় ফেরদৌসী আক্তার বাজিতপুর থানায় হত্যা মামলা করেছেন। মামলায় একই গ্রামের রমজান মিয়া (৬৫), তার স্ত্রী এবং তার চার ছেলে মাসুক মিয়া (৩২), আশক মিয়া (২৫), কাউসার মিয়া (২২), তরিকুল মিয়াসহ (১৯) ১০ ব্যক্তিকে আসামি করা হয়েছে।

জানা যায়, গ্রামের জহিরুল ইসলামের মেয়ে সুমাইয়া আক্তার বাজিতপুর রাজ্জাকুন্নেছা স্কুল অ্যান্ড কলেজের এসএসসি পরীক্ষার্থী। এক বছর আগে সুমাইয়াকে প্রেমের প্রস্তাব দেন রমজান মিয়ার ছেলে কাউসার মিয়া। প্রস্তাবে সাড়া না পেয়ে বিয়ের প্রস্তাব দেওয়া হয়। বিয়ের প্রস্তাবও ফিরিয়ে দেওয়া হয়।

এমন পরিস্থিতিতে দুই মাস আগে অন্যত্র বিয়ে করেন কাউসার। কিন্তু বিয়ের পর থেকেই সুমাইয়ার নামে নানা কুৎসা রটনা করতে থাকেন কাউসার। এক কান দুই কান করে পুরো গ্রামে ছড়িয়ে পড়ে। সুমাইয়ার বাবা কুৎসা রটনার কারণ জানতে গত সোমবার রাত ১০টার দিকে কাউসারের বাড়িতে যান। এর বিচার দাবি করেন। এ নিয়ে দুই পরিবারের মধ্যে কথা কাটাকাটি হয়। এক পর্যায়ে কাউসারের পরিবারের সদস্যরা সুমাইয়ার বাবা ও মাসহ সবার ওপর হামলা চালায়। এতে সুমাইয়া, তার বাবা ও মা এবং বোন গুরুতর আহত হন। পরে সুমাইয়াকে স্থানীয় একটি হাসপাতালে ভর্তি করা হলে অবস্থা খারাপ হওয়ায় তাকে ঢাকার উত্তরার একটি হাসপতালে স্থানান্তর করা হয়। বুধবার সেখানেই তার মৃত্যু হয়।

বাজিতপুরের জহুরুল ইসলাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন সুমাইয়ার মা ফেরদৌসী আক্তার বলেন, ‘প্রেমের প্রস্তাব ও বিয়েতে রাজি না হওয়ার বিষয়টি কোনো অবস্থাতেই মেনে নিতে পারছিল না কাউসার ও তার পরিবার। আর এ কারণেই গ্রামজুড়ে সুমাইয়ার নামে আজেবাজে কুৎসা রটনা করছিল। আমরা কাউসারের এসব অপকীর্তির বিচার চাইতে যাওয়ায় সুমাইয়ার প্রাণটাই কেড়ে নিল তারা। বাজিতপুর থানার ওসি মাজহারুল ইসলাম জানান, এ ঘটনায় মামলার অন্যতম আসামি রমজানের স্ত্রী স্বপ্নাকে গ্রেফতার করা হয়েছে। অন্য আসামিদের গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে।

 

সূত্র: jugantor

**এই সাইটে সাধারণত আমরা নিজস্ব কোনো খবর তৈরী করি না। আমরা বিভিন্ন নিউজ সাইট থেকে খবরগুলো প্রকাশ করে থাকি। তাই কোনো খবর নিয়ে আপত্তি বা অভিযোগ থাকলে সংশ্লিষ্ট নিউজ সাইটের কতৃপক্ষের সাথে যোগাযোগ করার অনুরোধ রইলো।